Cricket

অপরাজিত নাসির হোসাইন, প্রিমিয়ার লিগে গড় ৪৭৭

এবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে নাসির হোসেনের উইকেট যেন সোনার হরিণ, কেননা ৭ টি ম্যাচে মাত্র একবার আউট হয়েছেন, আর উইকেটটি পেয়েছেন আরাফাত সানি। এ সাতটি ম্যাচে তার রান ১০৬ *, ৪১ *, ১৫ *, ৬৪, ১৩৪* ও ৬১*। সর্বমোট ৪৭৭। যেহেতু মাত্র একবার আউট হয়েছেন, তাই এ প্রিমিয়ার লিগে তার গড়ও ৪৭৭।

জাতীয় দলের দার উন্মুক্ত করতে একজন খেলোয়াড়ের ঘরোয়া লীগে যেরকম পারফরম্যান্স দেখানো দরকার, তিনি সেরকমি দিচ্ছেন। তবে গত দু বছর ধরে তার প্রতি যে অবহেলা নির্বাচকদের, এখন এটাই দেখার বিষয়, সে অবহেলা কাটে কিনা। অবশ্য আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে একটি ম্যাচে তাকে নেয়া হয়েছিল, কিন্তু ব্যাট করার সুযোগ পান নি, তবে বোলিং করে পেয়েছেন দুটি উইকেট এবং দুটি মূল্যবান ক্যাচ নিয়েছেন।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি পয়েন্ট টেবিল

India Vs. Pakistan – Champions Trophy Final Match Live Stream

আই সি সি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি ২০১৭ এর প্রতিটি ম্যাচ দেখা যাবে www.pressbangladesh.org এর ওয়েব সাইটে। ম্যাচ শুরুর ৩০ মিনিট আগে এ লাইভ স্ট্রিমিং শুরু হবে।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ২০১৭ সময় সূচি

আই সি সি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি এর দল সমূহ

গ্রুপ এঃ বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড
গ্রুপ বিঃ শ্রীলংকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান ও ভারত

সময়সূচি

জুন ০১ 	দুপুর ৩ঃ৩০  - 	বাংলাদেশ - ইংল্যান্ড  
জুন ০২ 	দুপুর ৩ঃ৩০  - 	অস্ট্রেলিয়া - নিউজিল্যান্ড 
জুন ০৩	দুপুর ৩ঃ৩০  -	শ্রীলংকা - দক্ষিণ আফ্রিকা 
জুন ০৪ 	দুপুর ৩ঃ৩০  - 	পাকিস্তান -  ভারত 
জুন ০৫ 	সন্ধ্যা ৬-৩০ - 	বাংলাদেশ - অস্ট্রেলিয়া
জুন ০৬ 	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	ইংল্যান্ড - নিউজিল্যান্ড 
জুন ০৭  	সন্ধ্যা ৬-৩০ - 	পাকিস্তান - দক্ষিণ আফ্রিকা 
জুন ০৮ 	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	ভারত - শ্রীলংকা 
জুন ০৯ 	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	বাংলাদেশ -  নিউজিল্যান্ড 
জুন ১০ 	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	ইংল্যান্ড - অস্ট্রেলিয়া 
জুন ১১ 	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	দক্ষিণ আফ্রিকা - ভারত 
জুন ১২ 	দুপুর ৩ঃ৩০  - 	শ্রীলংকা - পাকিস্তান 

জুন ১৪ 	দুপুর ৩ঃ৩০  - 	প্রথম সেমি ফাইনাল 
জুন ১৫ 	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	দ্বিতীয় সেমি ফাইনাল 

জুন ১৮	দুপুর ৩ঃ৩০ - 	ফাইনাল 

১০ হাজার রান এর এলিট ক্লাবে পাকিস্তান এর ক্রিকেট তারকা ইউনিস খান

পাকিস্তান এর ক্রিকেট তারকা ইউনিস খান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে তার দশ হাজার রান এর মাইল ফলক স্পর্শ করলেন। ৩৯ বছর বয়সী এ তারকা এ মাইল ফলক স্পর্শ করতে খেলেছেন ১১৬ টি টেস্ট ম্যাচ। গড় ছিল ৫৩.০৯। তিনিই প্রথম পাকিস্তানি খেলোয়াড়, যিনি টেস্ট ক্রিকেটে দশ হাজার রান করলেন। এটি অর্জনের পথে তিনি করেছেন ৩৪ টি শতক ও ৩২ টি অর্ধশতক।

২০০১ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে রাওয়ালপিন্ডি স্টেডিয়ামে তার অভিষেক হয়েছিল। প্রথম ইনিংসে ১২ রান করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে করেছিলেন ১০৭ রান।

টেস্ট ক্রিকেটে তিনি ১৩ তম ব্যাটসম্যান, যিনি এ সম্মান অর্জন করলেন। পাকিস্তান এর জাভেদ মিয়াদাদ ১২৪ ম্যাচ খেলে করেছেন ৮৮৩২ এবং ইনজামাম-উল-হক ১২০ ম্যাচ খেলে করেছেন ৮৮৩০ রান।

ইউনিস খান এর রেকর্ড

তার অন্যান্য অর্জনের মাঝে রয়েছে, তিনি ১১ টি দেশে সেঞ্চুরি করেছেন। এ ছাড়া পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের মাঝে সর্বাধিক ৩৪ টি শতক করেছেন তিনি। রয়েছে ৩১৩ রানের একটি ইনিংস। এ ছাড়াও রয়েছে ৫ টি ডাবল সেঞ্চুরি

তার শতকগুলোর মাঝে রয়েছে চতুর্থ ইনিংসে চারটি শতক।

দশ হজার ক্লাব এর অন্যান্য সদস্য

শচীন টেন্ডুলকার (ভারত) – ১৫৯২১ রান
রিকি পন্টীং (অস্ট্রেলিয়া) – ১৩৩৭৮ রান
জ্যাক ক্যালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা) – ১৩২৮৯ রান
রাহুল দ্রাভিদ (ভারত) – ১৩২৮৮ রান
কুমার সাঙ্গাকার (শ্রীলংকা) – ১২৪০০ রান
ব্রায়ান লারা (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) – ১১৯৫৩ রান
শিবনারায়ণ চান্দারপল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) – ১১৮৬৭ রান
মাহেলা জয়াবর্ধনে (শ্রীলংকা) – ১১৮১৪ রান
এলান বোর্ডার (অস্ট্রেলিয়া) – ১১১৭৪ রান
এলিস্টার কুক (ইংল্যান্ড) – ১১০৫৭ রান
স্টিভ ওয়াহ (অস্ট্রেলিয়া) – ১০৯২৭ রান
শুনিল গাভাস্কার (ভারত) – ১০১২২ রান

জমে উঠেছে আই পি এল

IPL 2017

জমে উঠেছে ভারত এর আই পি এল। তবে এদেশের মানুষের চোখ মাত্র দুটি দলের দুজন খেলোয়াড়ের দিকে। একজন বর্তমান বিশ্বের শ্রেষ্ঠ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, যিনি খেলছেন কোলকাতা নাইট রাইডার্স আর পেস বোলিং বিস্ময় মুস্তাফিজ, যিনি রয়েছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদে। পয়েন্ট টেবিলেরও শির্ষে রয়েছে এ দুটি দল।

বিগত দুটি আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল এ দুটি দল, আর তাতে বিশেষ অবদান রেখেছিলেন এ দুজন। গত আসরে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় এর পুরষ্কারও উঠেছিল কাটার মাস্টার মুস্তাফিজের হাতে। একের পর এক উইকেট নিয়ে দলের বোলিং আইকন হয়ে গিয়েছেন। আর সাকিবের কথা নতুন করে কিছু বলার নেই। প্রতিনিয়ত তিনি নিজেকে শুধুই ছাড়িয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

আই পি এল এর লিঙ্ক সমূহ
আই পি এল লাইভ সম্প্রাচার

আই পি এল পয়েন্ট তালিকা

আই পি এল এর সময়-সূচী

Cricket

১১ টি দেশে সেঞ্চুরি করার অনন্য গৌরব ইউনিস খান এর

টেস্ট ক্রিকেটে ১১ টি দেশে সেঞ্চুরি করার অনন্য গৌরব অর্জন করলেন পাকিস্তান এর ইউনিস খান। এর আগে ভারতের রাহুল দ্রাবির টেস্ট খেলুরে ১০ টি দেশে সেঞ্চুরি করেছিলেন। কিন্তু ইউনিস খান দুবাইতে সেঞ্চুরি করে ১১ টি দেশে সেঞ্চুরি করেছেন। আজ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শত রান করে এ গৌরব অর্জন করেন।

টেস্ট ক্রিকেটে তিনি ৩৪ টি সেঞ্চুরি করলেন।

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড ২০১৬-২০১৭

bangladesh cricket board

বাংলাদেশ দলের ২০১৬ সালের নিউজিল্যান্ড সফরে প্রথম তিনটি ওডিআই, দুটি টি ২০ এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে। এ সফরে ফিরেছে বাংলাদেশ এর পেস বিস্ময় মুস্তাফিজুর রহমান। আই পি এল খেলতে গিয়ে তিনি কাঁধের ইনজুরিতে পরেন এবং প্রায় ৬ মাস পরে আবারও ফিরেছেন জাতীয় দলে।

স্কোয়াডে স্থান হয় নি, নাসির হোসাইন এর।

এবারের সফরে আন্তর্জাতিক অভিষেক হতে যাচ্ছে, লেগ স্পিনার তানভীর হায়দার, উইকেট রক্ষক নুরুল হাসান এবং পেসার শুভশীশ রয় এর।

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড ওয়ান ডে সফরের সময়সুচী ও ফলাফল

খেলা সময় মাঠ ফলাফল
১ম ওয়ান ডে ডিসেম্বর ২৬ ক্রাইস্টচার্চ ক্রিকেট গ্রাউন্ড নিউজিল্যান্ড ৩৪১ (৫০ ওভার, ৭ উইকেট)
বাংলাদেশ ২৬৪ (৪৪.৫ ওভার, ১০ উইকেট)
ফলঃ নিউজিল্যান্ড ৭৭ রানে জয়ী
ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ ল্যাথাম (নিউজিল্যান্ড)
বিস্তারিত
২য় ওয়ান ডে ডিসেম্বর ২৯ নেলসন ক্রিকেট গ্রাউন্ড নিউজিল্যান্ড ২৫২ (৫০ ওভার, ১০ উইকেট)
বাংলাদেশ ১৮৪ (৪২.৪ ওভার, ১০ উইকেট)
ফলঃ নিউজিল্যান্ড ৬৮ রানে জয়ী
ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ ব্রুম (নিউজিল্যান্ড)
বিস্তারিত

৩য় ওয়ান ডে ডিসেম্বর ৩১ নেলসন ক্রিকেট গ্রাউন্ড বাংলাদেশ ২৩৬ (৫০ ওভার, ৯ উইকেট)
নিউজিল্যান্ড

ফলঃ
ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ
বিস্তারিত

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড টি ২০ সফরের সময়সুচী ও ফলাফল

খেলা সময় মাঠ ফলাফল
১ম টি ২০ জানুয়ারি ৩ নেপিয়ার
২য় টি ২০ জানুয়ারি ৬ মাউন্ট মাউঙ্গানুই

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড টেস্ট সিরিজ এর সময়সুচী ও ফলাফল

খেলা সময় মাঠ ফলাফল
১ম টেস্ট জানুয়ারি ১২ ওয়েলিংটন
২য় টেস্ট জানুয়ারি ২০ ক্রাইস্ট চার্চ

বাংলাদেশ দল

মাশরাফি মুর্তাজা (অধিনায়ক)
মুশফিকুর রহিম (উইকেট রক্ষক)
তামিম ইকবাল
সাকিব আল হাসান
ইমরুল কায়েস
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ
মেহেদী হাসান
মসাদ্দেক হোসাইন
মুস্তাফিজুর রহমান
রুবেল হোসাইন
সাব্বির রহমান
সৌম্য সরকার
তাসকিন আহমেদ
শুভশিষ রায়
তানভীর হায়দার

New Zealand Cricket

কেবল বাংলাদেশই এশিয়ায় চতুর্থ ইনিংসে ৪০০+ করেছে

cricket ball

এশিয়ার মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড বাংলাদেশের। ২০০৮ সালে শ্রিলঙ্কার বিপক্ষে ৪১৩ রান করেছিল। আশরাফুল করেছিলেন ১০১। তবে ম্যান অফ দা ম্যাচ পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। প্রথম ইনিংসে ২৬ রান করলেও পরের ইনিংসে করেন ৯৬ রান। আর প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট ও পরের ইনিংসে ১টি উইকেট লাভ করেন।

চতুর্থ ইনিংসে আশরাফুল এর ১০১ এবং সাকিব এর ৯৬ রানই বাংলাদেশ দলকে এনে দিয়েছিল এ রেকর্ডটি। রেকর্ড গড়া এ ম্যাচটি অবশ্য শ্রীলঙ্কা জয় পেয়েছিল। ১০৭ রানে। আর এ জয়ের এছনে সবচেয়ে বড় অবদান ছিল মুরালিধরনের। ম্যাচে ১০ উইকেট ছিল।

এশিয়ার মাটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড পাকিস্তানের। শ্রীলঙ্কার মাটিতে তারা করেছিল ৩৮২। চতুর্থ ইনিংসে ইউনিস খান এর ১২২ রান করেন।

আর এ রেকর্ডটি বিশ্বের মাঝে ১২ নম্বরে রয়েছে। তালিকার প্রথমেই রয়েছে ইংল্যান্ড। ৬২৫ রান করেছিল দলটি ৫ উইকেটে। সাল ছিল ১৯৩৯ সাল। চতুর্থ ইনিংসে গিব ১২০, এনরিক ২১৯ এবং হ্যামন্ড ১৪০ করেছিল। ম্যাচটি হয়েছিল ডারবানে।

– সুত্রঃ ইএসপিএন