পানি কমতে শুরু করেছে দিনাজপুরে, স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে জনগন

refugee
আশ্রয় কেন্দ্রে মালেকা বানু একাকী বসে আছেন তার একমাত্র অবলম্বন একটি ছাগলকে নিয়ে।

ভয়াবহ বন্যায় দিনাজপুর শহর তলিয়ে গিয়েছে। শহরের অধিকাংশ স্থানেই ছিল পানির নিচে। ছিল না বিদ্যুৎ। বন্ধ হয়ে গিয়েছিল যান চলাচল, এমনকি ট্রেনও। তবে সেই পানি ইদানিং কমতে শুরু করেছে। মূল শহর এখন শুকনো। আশ্রয় কেন্দ্র থেকে ফিরতে শুরু করেছে লোকজন। তবে শহরের বিভিন্ন কোনায় জমে থাকা পানির কারণে মশার উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে। বন্যার পানিতে মৃত্যু হয়েছে অনেক প্রাণীর আর এতেই বৃদ্ধি পেয়েছে পচা দুর্গন্ধ। অন্যদিকে এখনও রয়েছে তীব্র খাবার সংকট। বিশুদ্ধ পানির অভাবও প্রকট। পৌরসভা থেকে পানি দেয়া হচ্ছে, কিন্তু তা প্রয়োজনের তুলনায় নগন্য।

Flood

আক্রান্ত লোকজন এখন অসহায়, তাদের বাড়িঘর হারিয়ে। অনেকেই হারিয়েছেন উপার্জনের অবলম্বন গবাদি পশু। লোকজন এ কারণে এখন দিশেহারা। তারা কি করবে, বুঝতে পারছে না। আশ্রয় কেন্দ্র থেকে অনেকের টাকা-পয়সা লুট হয়েছে। অনেকেই এসকল অসহায় মানুষের পাশে এসে দাড়িয়েছেন, কিন্তু এটা তাদের জন্য যথেষ্ট নয়। অসহায় লোকজন এখন তাকিয়ে আছে কিছুটা সাহায্যের আশায়, যাতে তারা আবার একটু দাড়াতে পাড়ে।

Related posts

Leave a Comment