এই বর্ষায় কি পরবেন

আসছে বর্ষাকাল। সময়টাতে হালকা ঠান্ডাও থাকে। আর এ কারণেই সালওয়ার কামিজ কিংবা হালকা সুতির টি-শার্ট বেশ আরামদায়ক পোশাক হতে পারে। একটি ঠান্ডা পরলে টি-শার্টের সাথে কটি পরা যেতে পারে। পোশাকের সাথে ম্যাচ করে ব্যবহার করতে পারেন ছাতা। তবে ইদানিং পাওয়া যায় স্টাইলিশ রেইন-কোর্ট।

Fashion Portrait
মডেলঃ শাহনাজ পারভিন সুইটি
ছবিঃ যুবাইর বিন ইকবাল

উল্টা পাল্টা জোকস

বই মেলা
ভাইয়ায়ায়ায়ায়া একটা অটোগ্রাফ!!! নারী ভক্তের এমন আব্দার কিভাবে ফেলবেন তৌহীদ। আর তাই বই মেলায় অটোগ্রাফ দিচ্ছেন জনপ্রিয় মীরাক্কেল তারকা। ছবিঃ যুবাইর বিন ইকবাল

জনপ্রিয় মীরাক্কেল তারকা মোঃ তৌহিদের বই উল্টা পাল্টা জোকস-৩ এবারের বইমেলার পাঠকদের মন জয় করেছে। পাঠকদের চাহিদা এবং উৎসাহ দেখেই এই সিরিজের ১ ও ও ২ এর পর এবার ৩নং বইটি বের হলো। দেশের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে থাকা সব কমেডি ক্লাবগুলো থেকে উদীয়মান কৌতুকশিল্পী/কমেডিয়ান এবং হাস্যরসিক মানুষের মন জয় করতে সফল হয়েছে উল্টা পাল্টা সিরিজের বইগুলো। বইয়ের সবথেকে বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে বইটি হাতে নিয়েই সবাই কনফিউজড হয়ে যায় বইটির কভার আর প্রথম পৃষ্ঠা দেখে। কেন কনফিউজড হতে হয় তা জানতে হলে অবশ্যই বইটি সংগ্রহ করতে হবে। বইটির সহযোগী লেখক বাংলাদেশ কমেডি ক্লাবের স্টার পারফর্মার ফজলুল হক সাকী বলেন-“বইমেলা শেষ হলেও বইয়ের চাহিদা শেষ হয়নি। প্রতিনিয়ত দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে বইটির জন্য ফোন আসছে। তারা কিভাবে বইটি পাবে।”

Bangladeshi Wedding Photographer

তাদের জন্য সুখবর। উল্টা পাল্টা সিরিজের সবক’টি বই এখন পাওয়া যাচ্ছে বুনো পায়রা Fun Shop এ। বুনো পায়রার অফিয়াল পেজ বা এই নাম্বারে যোগাযোগ করলে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠক তার বইটি হাতে পেয়ে যাবে।

বুনো পায়রার অফিসিয়াল পেজ : www.facebook.com/bunopayra01

এ জার্নি বাই মীরাক্কেল

mirakkel
বইমেলা প্রাঙ্গণে নিজের বই হাতে উচ্ছ্বসিত এমদাদুল হক হৃদয়। ছবিঃ যুবাইর বিন ইকবাল

বাংলাদেশ এর তরুণ মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার সিজন ৯ এর ফাইনালিস্ট এমদাদুল হক হৃদয় এ বছরের একুশে বই মেলায় প্রকাশ করেছেন “এ জার্নি বাই মীরাক্কেল” বইটি। মীরাক্কেল এর টিভি পর্দায় আমরা দেখেছি কিভাবে হৃদয় মজাদার কৌতুক আর হাস্যরস দিয়ে আমাদের মাতিয়ে রেখেছিলেন। আমরা দেখেছি কিভাবে তিনি একজন দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছিলেন। কিন্তু পর্দার পেছনের গল্পগুলো কি আমরা জানি? নিঃসন্দেহে জানা নেই। হৃদয় এর মতে, পর্দার পেছনেও ঘটে থাকে এমন সব ঘটনা, এমন সব কান্ড যা কোন অংশেই কমেডি শো এর চেয়ে কম নয়।

Bangladeshi Wedding Photographer

তার মতে, পর্দার আড়ালের গল্পগুলো দিয়েও তৈরি করা যাবে মীরাক্কেল এর আরও একটি সিজন। তবে তাত আর সম্ভব নয়, আর তাই তিনি এবারের বই মেলায় পর্দার পেছনের গল্পগুলো নিয়ে প্রকাশ করেছেন “এ জার্নি বাই মীরাক্কেল।” মীরাক্কেলের অডিশন থেকে শুরু করে কোলকাতায় যাবার পর মীরাক্কেলের গ্রুমিং এর অভিজ্ঞতা নিয়ে লেখা আনাড়ী হাতের গল্প, গল্পের ফাকে ফাকে পাঠককে কাতুকুতু দিয়ে কিংবা অস্ত্রের মুখে হাসানোর প্রত্যয় নিয়ে সংযোজন করা কিছু ‘জোকস’, মীরাক্কেলের নবম সিজনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বকারী পার্ফরমার দের মীরাক্কেল এর জার্নি নিয়ে বলা কিছু কথা , আর লেখক এবং পাঠক – উভয়ের স্মৃতিবিজড়িত কিছু রঙ্গিন ছবি !!!

বই মেলায় সাহস পাবলিকেশন্স এর স্টলে ছিল এবং প্রকাশক এর মতে, তার স্টলে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে এ বইটি।

ভক্তরা এসেছেন, কিনেছেন বইটি নিয়েছেন অটোগ্রাফ আর তুলেছেন সেলফি। এমনি একজন তরুণী আরশা জানিয়েছেন, তিনি নিয়মিত মীরাক্কেল দেখেন এবং তিনি এই মিরাক্কেল তারকার ভক্ত। আর তাকে এক নজরে দেখার জন্যই মেলায় এসেছেন। তিনি অত্যন্ত খুশি, হৃদয়ের অটোগ্রাফ সহ বই কিনতে পেরে। ভবিষ্যতে আরও কিছু বই নিয়ে আসতে চান পাঠকদের জন্য।

যারা বইটি কিনতে পারেন নি মেলা থেকে, তাদের জন্য www.rokomari.com থেকে রয়েছে কেনার সুজোগ, তাছাড়া বুনো পায়রা থেকে নিতে পারেন।

জ্যাকুলিন মিথিলা আত্মহত্যার ‘গুজব’

জ্যাকুলিন মিথিলা আত্মহত্যা করেছেন এটি পুরানো খবর। কিন্তু এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করা যায় নি।

জ্যাকুলিন মিথিলা
মডেল জ্যাকুলিন মিথিলা

জ্যাকুলিন মিথিলার ঘনিষ্ঠ একজন বন্ধু “সুলতান মাহমুদ খান” দাবী করেছেন, তার সাথে যোগাযোগ হয়েছে এবং তিনি ভাল আছেন। আর এ কারণেই প্রশ্ন উঠেছে, তিনি কি সত্যিই আত্মহত্যা করেছেন নাকি অজানা কোন এক কারণে নিজেকে আড়াল করেছেন?

UODA উইক বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হল সি এস ই ডিপার্টমেন্ট

প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ইউনিভার্সিটি অব ডেভলপমেন্ট অল্টারনেটিভ (UODA) আয়োজন করেছিল UODA উইক। যেখানে আয়োজন করা হয়েছিল বিভিন্ন ধরণের প্রতিযোগিতা। তবে সবচেয়ে মূল আকর্ষণীয় প্রতিযোগিতা হচ্ছে বিতর্ক প্রতিযোগিতা। আর এ বছরের বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ। আইন বিভাগকে সেমি-ফাইনালে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে তারা এবং সেখানে তারা লড়াই করে ইংরেজী সাহিত্য বিভাগ এর সাথে।

আত্মহত্যা করলেন মডেল জ্যাকুলিন মিথিলা

Jacqueline Mithila Suicide
মডেল জ্যাকুলিন মিথিলা

বাংলাদেশ এর আলোচিত ও একইসাথে সমালোচিত মডেল জ্যাকুলিন মিথিলা আত্মহত্যা করেছেন। ৩০ জানুয়ারি রাত ১১ঃ৪৯ মিনিটে তার ফেসবুক প্রোফাইলে তিনি একটি স্ট্যাটাস প্রদান করেন, এতে তিনি লিখেন, “কালকে আমি আত্মহত্যা করব। কেউ আমাকে প্রত্যাখান করে নাই। আমিও কাউকে প্রত্যাখান করি নাই। কিন্তু আমি আত্মহত্যা করব।”

এর পরে ৩১ জানুয়ারি সকাল ৭ঃ২৮ মিনিটে তিনি আরও একটা স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন, “ধীরে ধীরে মৃত্যুর পথে পা বাড়াচ্ছি।”

গত কয়েকদিন ধরেই তার ভক্তগণ বারবার প্রশ্ন করছিলেন, আসলেই তিনি এ কাজ করেছেন কিনা? কিন্তু কোন জায়গা থেকেও মিলছিল না কোন সংবাদ। অবশেষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তাদের হাসপাতালেই তার লাশের ময়না তদন্ত করা হয়েছিল।

Jacqueline Mithila Suicide News
ধারনা করা হচ্ছে সকল খোলামেলা ছবির জন্যই তার স্বামীর সাথে মনোমালিন্য শুরু হয়

চট্টগ্রাম বন্দর থানা থেকে জানানো হয়েছে, তারা তার নিজ বাসা থেকে গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেন এবং পরে এ ঘটনায় থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার দায়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের সময়ে তার শরীরে প্রচুর পরিমাণ ঘুমের ঔষধ পাওয়া গেছে। এ কারণে পুলিশ এর ধারণা, এটি হত্যাও হতে পারে। চট্টগ্রাম বন্দর থানা থেকে আরও জানানো হয়েছে, তার মুল নাম জয়া শীল। মিডিয়ায় তিনি নিজেকে জ্যাকুলিন মিথিলা হিসাবে পরিচিতি করান। এমনকি বিয়ের রেজিস্ট্রি খাতায়ও তার নাম জয়া শীল লেখা আছে।

ধারণা করা হচ্ছে, তার স্বামী উৎপল রায় সাথে মনোমালিন্য থেকে তিনি এ পথে পা বাড়িয়েছেন। তার খোলামেলা ও উদ্দাম জীবনযাপন তার স্বামী মেনে নিতে পারেন নি। তার বাবা নরসুন্দর স্বপন শীল ভেঙ্গে পড়েছেন। তার মা কারও সাথে কোন কথা বলছেন না।

ফেনিতে শৈশব কাটিয়ে যখন ভাগ্যের সন্ধানে যাদুর শহর ঢাকায় আসেন, তখন মিডিয়ায় কাজ শুরু করেন। কিন্তু ভাল কোন কাজ না করায় কখনও নিজেকে সেভাবে উপস্থাপন ধরতে পারেন নি। আর এ কারণেই তিনি আলোচনায় আসতে বেছে নেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমকে যেখানে তিনি নিজের খোলামেলা ছবি প্রকাশ করতে থাকেন। আইটেম গান ও কয়েকটি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেন, যেখানেও তিনি ছিলেন অত্যন্ত খোলামেলা। আর এ কারনেই আলোচনার চেয়ে সমালোচিতই হয়েছেন বেশির ভাগ সময়ে।

ছবিঃ জ্যাকুলিন মিথিলা এর ফেসবুক প্রোফাইল

জিয়া ইসলাম সিঙ্গাপুরে, কিন্তু তার মাথার খুলি অ্যাপোলো হাঁসপাতালে

দৈনিক প্রথম আলো এর প্রধান ফটো-সাংবাদিক জিয়া ইসলামকে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়েছে উন্নত চিকিৎসার জন্য, কিন্তু তার মাথার খুলি ঢাকার অ্যাপোলো হাঁসপাতালে রয়ে গেছে হাঁসপাতাল এর ভুলে। একটি মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনার পরে তার ব্রেনে অপারেশন করা হয়। এ অপারেশন করার সময়ে তার মাথার খুলি সরানোর প্রয়োজন হয়েছিল এবং তা হাঁসপাতালের ফ্রিজে একটি সুনির্দিস্ট তাপমাত্রায় রেখে দেয়া হয়।

কিন্তু তার অবস্থার উন্নতি না হলে, তাকে সিঙ্গাপুরে নেয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসক তার মাথার খুলি কোথায় জানতে চাইলে, এপোলো হাঁসপাতাল এর সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়। এরপর তারা বলেন, ভুলক্রমে এটি তাদের কাছেই রয়ে গেছে। এখন এটি তারা পাঠানোর ব্যবস্থা করছে।

বাংলা ট্রিবিউন এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাঁসপাতালের সাথে অনেকবার যোগাযোগের চেস্টা করে। কিন্তু হাঁসপাতাল থেকে কোন ধরণের উত্তর দেয়া হয় নি।

বাংলাদেশ এর সবচেয়ে ব্যয়বহুল হাসপাতালগুলোর মধ্যে এটি একটি। কিন্তু এ হাঁসপাতালটি প্রতিনিয়ত দুর্নিতী করে আসছে বিভিন্ন বিষয়ে। ভূল চিকিৎসা, মৃত রোগীকে আই সি ইউতে রেখে টাকা আদায়, খারাপ আচরণ, নোংরা পরিবেশ, দায়িত্বে অবহেলা ইত্যাদি বিষয়গুলো তারা প্রায়শই করে আসছে। প্রচুর অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ রয়েছে ভারত এবং বাংলাদেশের কতিপয় নিম্নমানের ডাক্তারদের নিয়ে গড়ে উঠেছে এ হাঁসপাতালটি।

ভুক্তভোগী অনেকেই বলেছেন, তারা যেন অ্যাপোলো হাঁসপাতালে চিকিৎসা সেবা নেয়ার আগে ভাল করে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিৎ।