মুস্তাফিজের অন্যন্য কৃতিত্ব

Mustafiz
Mustafiz
দলের মধ্যমণি মুস্তাফিজুর রহমান

মুস্তাফিজুর রহমান!!! আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু করার পর থেকে শুধু একের পর এক বিস্ময়ের জন্ম দিয়েই যাচ্ছেন। প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যান যারা সব বোলারদের জন্য হয়ে আসেন দুঃস্বপ্ন হিসাবে, আর সেখানে তিনিই কিনা তাদের জন্যই দুঃস্বপ্ন। রহস্যময় কাটার, স্লোয়ার, সুইং, গতি কি নেই তার মাঝে?

একদিনের অভিষেক ম্যাচেই ৫ উইকেট!!! টেস্ট অভিষেক ম্যাচে ৪ উইকেট!!! টি ২০ অভিষেক ম্যাচে ২ উইকেট!!! এক কথায় কি বলা যায়? স্বপ্নের অভিষেক!!!

আর উইকেটগুলো যেন তেন ব্যাটসম্যানের নয়। যাদের নাম শুনলেই বোলারদের নাকের জল আর চোখের জল এক হয়ে যায়।

শহীদ আফ্রিদি, গ্যালারিতেই বল পাঠানো যার পছন্দের কাজ, সেই আফ্রিদিকে দিয়ে শুরু করেছিলেন তিনি। কিছু বুঝে ওঠার আগেই মুসফিককে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেলেন। বাংলাদেশে খেলতে এল ভারত। বিশ্বকাপে ভারতের কাছে বিতর্কিত ভাবে হেরে যাবার ঘা তখনও স্পষ্ট। রোহিত শর্মাকে ফিরিয়ে দিয়ে শুরু করলেন ভারত বধ মিশন। কি বোকাটাই না তিনি হয়েছিলেন, বুঝতেই পারলেন না তার বল। হাশিম আমলা, টেস্টে যিনি দক্ষিন আফ্রিকার নির্ভরতার প্রতীক, সেই তিনিই কিনা খোঁচা মেরে আউট হলেন এই মুস্তাফিযের বলে। এর পরে গেলেন টি ২০ বিশ্বকাপ খেলতে। খেললেন মাত্র তিনটি ম্যাচ, উইকেট নিলেন ৯টি। শুরু করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার কাপ্তান স্মিথকে দিয়ে।

এছাড়াও খেলেছেন বি পি এল, সেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান মারলন স্যামুয়লেস আর আই পি এলে উইকেট মিশন শুরু করেছেন বর্তমানের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান ডি ভিলিয়ার্সকে দিয়ে।

সারা বিশ্বের সকল সাবেক খেলোয়ার, ধারা ভাস্যকর সকলেই মুস্তাফিজের বন্দনা করে চলেছেন।

ব্রায়ান লারাতো বলেই দিলেন, তার সৌভাগ্য যে, তাকে মুস্তাফিজের বল খেলতে হয় নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *