নুসরাত জাহান

নুসরাত জাহান জৈন ৮ই জানুয়ারি, ১৯৯০ সালে কলকাতার এক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন নুসরত জাহান। তিনি একজন মডেল, অভিনেত্রী ও রাজনীতিবিদ। তার মা-ও একজন অভিনেত্রী ছিলেন। বর্তমানে তিনি দক্ষিণ কলকাতায় তার পরিবারসহ বাস করছেন। মোহাম্মদ শাহ জাহান এবং সুষমা খাতুনের কন্যা ‘কুইন অব দ্য মিশন স্কুল’-এ স্কুলজীবন সমাপ্ত করেন এবং ‘ভবানীপুর কলেজ, কলকাতা’ হতে বি কম ডিগ্রি লাভ করেন। বাংলা টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে সুন্দরী এবং প্রতিভাশালী নায়িকার মধ্যে অন্যতম হলেন নুসরত জাহান। তাঁর সৌন্দর্য্য ও অভিনয় দক্ষতা দর্শকের মনকে আপ্লুত করেছে। বর্তমানে তিনি দক্ষিণ কলকাতায় তার পরিবারসহ বসবাস করছেন।

নুসরাত জাহান ২০১০ সালে মডেলিং-এর মাধ্যমে নিজের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি উচ্চতার এই সুন্দরী তন্বী উক্ত সালে আয়োজিত ফেয়ার ওয়ান প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ঘোষিত হয়েছিলেন এবং মিস কলকাতা অ্যাওয়ার্ড টি জিতে নিয়েছিলেন । আর তারপর থেকেই শুরু হয় তাঁর অভিনয় জগতে পথচলা।

বানিজ্যিক ঘরানার ছবিতে অভিনয় করার পাশাপাশি নুসরাত জাহান বেশ কিছু ব্যতিক্রমী ধারার চরিত্র এবং ছবিতেও অভিনয় করেন এবং বিশেষ সমাদৃত হন । এই চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে অরিন্দম শিলের’ “হর হর ব্যোমকেশ” সবথেকে উল্লেখযোগ্য। সৃজিত মুখার্জী পরিচালিত,” জুলফিকার “ছবিতে অভিনেত্রী একটি অতি দুঃসাহসী চরিত্রে অভিনয় করেন এবং কিছু বলিষ্ঠ দৃশ্যে তাঁর অনবদ্য অভিনয় প্রশংসার দাবি রাখে।

২০১৬ সালের শেষ ছবিটি ছিল পথিকৃৎ বসুর পরিচালনায় “হরিপদ ব্যান্ডওয়ালা” যেখানে তাঁর সহ অভিনেতা ছিল অঙ্কুশ হাজরা । ২০১৭ সালে অভিনেত্রীকে প্রথম দেখা গিয়েছিল বিরসা দাশগুপ্ত পরিচালিত এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও যশ দাশগুপ্ত অভিনীত ‘One’ ছবিতে। ২০১৭ তে তিনি অতিথি শিল্পী হিসেবে ‘উমা” ছবিতে অভিনয় করেন এবং পরবর্তীকালে বিরসা দাশগুপ্ত পরিচালিত ‘ক্রিসক্রস” ছবিতেও তাঁর অবদান রাখেন।

অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতিতেও তিনি সমানভাবে সক্রিয়। ২০১৯ সালের, ১২ ই মার্চ , বর্তমান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী, মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৯ এ অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনে বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে নুসরাত জাহানের নামটি ঘোষণা করেছিলেন প্রার্থী হিসেবে । তিনি সেই নির্বাচনে তিন লক্ষ পঞ্চাশ হাজার ভোটের ব্যবধানে বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে জয়লাভ করেন ; আর তখন থেকেই শুরু হয় নুসরাত জাহানের রাজনৈতিক জীবনের যাত্রা যা এখনো অব্যাহত। বর্তমান তিনি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসর বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের বসিরহাট থেকে জয়ী একজন সংসদ সদস্য।

২০১০ সালে ফেয়ার ওয়ান মিস কলকাতা নামক একটি সৌন্দর্য প্রতিযোগীতায় বিজয়ী হন এই অনিন্দ্য সুন্দরী নুসরাত জাহান। তার সৌন্দর্যের কারণে তিনি মডেলিং-এ সুযোগ পান। এরপর তিনি কলকাতার বিখ্যাত নায়ক জিতে্‌র বিপরীতে এবং রাজ চক্রবর্তীর পরিচালনায় শত্রু চলচ্চিত্রে অভিনয় করে পশ্চিম বাংলায় সুপরিচিত হন। এর প্রায় দুই বছর পর মুক্তি পায় টালিগঞ্জের আর এক বিখ্যাত নায়ক দেবের বিপরীতে এবং রাজিব বিশ্বাস পরিচালিত তার দ্বিতীয় ছবিঃ খোকা ৪২০। এই চলচ্চিত্রটি অত্যধিক জনপ্রিয়তা তাকে সাফল্যের অন্যতম শিখরে নিয়ে যায়। এরপর মুক্তি পায় অঙ্কুশ হাজরার বিপরীতে খিলাড়ি ছবিটি। তিনটি ছবিতেই এসকে মুভিজ প্রযোজনা করে। অভিনেত্রী নুসরাত জাহান একের পর এক ব্লকবাস্টার দর্শকদের উপহার দিয়ে গেছেন।

অভিনেত্রী এবং সাংসদ নুসরত জাহানের প্রিয় রং হল গোলাপি ,হলুদ এবং কালো এবং প্রিয় চিত্রাভিনেতারা হলেন শাহরুখ খান এবং হৃতিক রোশন। প্রিয় অভিনেত্রী হিসেবে প্রীতি জিন্টাকে তিনি শীর্ষে রাখেন। জানা গেছে যে প্রিয় খাবার হিসেবে পাস্তা, মটন রোল, মিষ্টি দই তাঁর পছন্দের তালিকায় প্রথমেই আসে। অবসর সময়ে অভিনেত্রী ব্যায়াম করা, জিমে যাওয়া, গিটার বাজানো এবং শপিং করতে বেশ পছন্দ করেন।

২০১৮ সাল থেকে অভিনেত্রী নুসরাত জাহান নামকরা ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সাথে একটি সম্পর্কে আবদ্ধ ছিলেন। সেই সম্পর্ক পূর্ণতা পায় বিবাহবন্ধনে। ১৯ শে জুন, ২০১৯ সালে তুরস্কে তাদের বিবাহ সম্পন্ন হয় এবং পরবর্তীকালে কলকাতায় এক অভ্যর্থনা পার্টির আয়োজন করে নবদম্পতি। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সাংসদ ও অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী সহ আরও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

নুসরতের বিবাহ পরবর্তী জীবন সুখকর ছিল না। অভিনেত্রী দাবি করেছিলেন যে তাঁদের বিবাহ বেআইনি। Turkish Marriage Regulation নীতি অনুযায়ী তাঁদের বিবাহ হয় কিন্তু সেটি ভারতবর্ষে বৈধ নয় বলেই বক্তব্য ছিল অভিনেত্রীর। নুসরতের বক্তব্য অনুযায়ী তাঁদের এই সম্পর্ক “লিভ~ ইন” এর বেশি আর কিছুই ছিল না। যদিও নুসরত জাহানের স্বামী নিখিল জৈনের বক্তব্য ভিন্ন ছিল এবং তিনি মনে করতেন যে তাঁরা স্বামী~ স্ত্রী হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিল। কিন্তু ভাগ্যের পরিহাস এই যে এই নবদম্পতি এখন একে অপরের থেকে বিচ্ছিন্ন জীবন যাপন করছেন।

সিনেমা

২০১১
শত্রু

২০১৩
খোকা 420
খিলাদি

২০১৪
কর্ম
যোদ্ধা: যোদ্ধা (দেশী ছোরি আইটেম গানে বিশেষ উপস্থিতি)
সন্ধে নামার বয়স

২০১৭
এক
অমি জে কে তোমার
বলো দুগ্গা মাইকি

২০১৮
উমা
ক্রিসক্রস
নাকাব

২০২০
আসুর
এসওএস কলকাতা

২০২১
স্বস্তিক সংকেত
অভিধান

গান

কেলোর কির্তী (২০১৫)
হাবিবী (২০২১)
নাচ ময়ূরী নাচ (২০২২)

পুরস্কার

বিজয়ী, ফেয়ার ওয়ান মিস কলকাতা ২০১০
সেরা জুরি, স্টার জলসা পরিবার পুরস্কার (জামাই ৪২০)

সোশ্যাল মিডিয়া
ফেসবুক
ইন্সটাগ্রাম
টুইটার
ইউটিউব

উইকিপিডিয়া

top wedding photographerin bangladesh

Related posts

Leave a Comment