প্রোটিন

প্রোটিন
আমাদের দেহের অস্থি, পেশি, বিভিন্ন দেহযন্ত্র, রক্ত কণিকা, দাঁত, চুল, নখ ইত্যাদি প্রোটিন দিয়ে গঠিত। সুস্থভাবে বেচে থাকাতে একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির প্রতিদিন প্রায় ১০০-১৫০ গ্রাম প্রোটিন প্রয়োজন। এর ৮৫ ভাগ উদ্ভিজ্জ প্রোটিন দরকার ও ১৫ ভাগ প্রাণিজ প্রোটিন দরকার। ১ গ্রাম প্রোটিন থেকে চার কিলোক্যালরি শক্তি পাওয়া যায়।

প্রোটিন এর উৎস

  1. প্রাণিজ প্রোটিনঃ মাছ, গোস্ত, ডিম, দুধ ইত্যাদি।
  2. উদ্ভিজ্জ প্রোটিনঃ ডাল, সয়াবিন, বীন, গম ইত্যাদি।

পুষ্টিগত গুরুত্ব বা কাজ

  • দেহের বৃদ্ধি, কোষ গঠন ও ক্ষয়পূরণ হল প্রোটিনের প্রধান কাজ।
  • তাপ শক্তি উৎপাদন করা।
  • দেহস্থ উৎসেচক, হরমোন ইত্যাদি সৃষ্টি করা।
  • অপরিহার্য অ্যামাইনো অ্যাসিডের চাহিদা পূরণ করা।

অতিরিক্ত আমিষ গ্রহণের অপকারিতা

  • অতিরিক্ত প্রোটিন গ্রহণ করলে ক্যানসার, ডায়েবেটিস, থাইরয়েড, মুটিয়ে যাওয়া, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ সহ নানা রোগের সর্বোচ্চ ঝুঁকি থাকে।
  • অতিরিক্ত আমিষ মলত্যাগের উপরও ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। আমিষ বেশি আর আঁশ কম খাদ্যাভ্যাসকে অত্যন্ত ভারি করে ফেলে। ক্ষুধা অনুভূত হবে না ঠিকমত, এতে পেট ফুলে থাকবে এবং অস্বস্তি সৃষ্টি হবে।
  • অতিরিক্ত আমিষ কিডনি বা বৃক্ক এর উপরে চাপ সৃষ্টি করে। এতে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়।
top wedding photographerin bangladesh

Related posts

Leave a Comment